স্বরূপকাঠির সালেহার পাশে পৌর মেয়র ইউএনও ওসি

হযরত আলী হিরু,পিরোজপুর প্রতিনিধি ॥
পিরোজপুরের স্বরূপকাঠিতে হাতুড়ে চিকিৎসকের ভুল চিকিৎসার শিকার হত দরিদ্র সালেহা খাতুনের (৬৫) চিকিৎসার জন্য সাহয্যের হাত বাড়িয়ে দিলেন স্বরূপকাঠি পৌর মেয়র, ইউএন এবং ওসি। সালেহা বেগমের অসহায়ত্বের খবর পেয়ে রোববার রাতে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ছুটে যান স্বরূপকাঠি পৌর মেয়র মো. গোলাম কবির, নেছারাবাদ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আবু সাঈদ এবং থানার ওসি মো. মনিরুল ইসলাম। এসময় হাসপাতলের চিকিৎসক ডাঃ মো. ফিরোজ কিবরিয়া ও ডাঃ নাজমুল হাসান মাসুদ খান এর কাছ থেকে সালেহার শারীরিক অবস্থার খোঁজ খবর নেন তারা। পরে সালেহাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য অসুস্থ সালেহার পরিবারের হাতে ১৫ হাজার টাকা তুলে দিয়ে তাকে বরিশাল শেবাচিমে পাঠানোর ব্যবস্থা করেন এবং সেই গ্রাম্য ডাক্তার হীরা লাল বাড়ৈ কে গ্রেফতারের জন্য নির্দেশ দেন প্রশাসন। এর আগে রোববার সালেহার ব্যাপারে প্রকাশিত খবর পত্র পত্রিকা ও ফেসবুকের মাধ্যমে জানতে পেরে উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা মো. ইব্রাহিম খলিল রোগী কল্যান তহবিল থেকে সালেহাকে কিছু ওষুধ কিনে দেন।
প্রসঙ্গত, গত ১৯ আগষ্ট শনিবার উপজেলার আলকিরহাট বাজারে পপুলার ফার্মেসীতে হীরা লাল বাড়ৈ নামে এক গ্রাম্য হাতুড়ে চিকিৎসক ৯ হাজার টাকা চুক্তিতে নিজ চেম্বারে বসে সালেহার জরায়ুতে অপারেশন করেন। অপারেশনের পর থেকে সালেহা অব্যাহত রক্তক্ষরনে মারাত্মক অসুস্থ হয়ে পড়ে। অবস্থার চরম অবনতি দেখে সালেহাকে নিয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠিয়ে ওই চিকিৎসক গা-ঢাকা দেয়।