দুর্নীতিবাজদের সঙ্গে ঐক্য করেছেন ড.কামাল-প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

0
(0)

সবুজ বাংলা অনলাইন ডেস্ক//
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বাধীন নতুন জোট জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সমালোচনা করে বলেছেন, যারা মানুষ পুড়িয়ে মারে, অগ্নিসন্ত্রাস করে, যারা এতিমের টাকা মেরে খায় আজ তাদের সঙ্গে ঐক্য করেছেন সেই কামাল হোসেন গং। তিনি নেতা মেনেছেন এমন একজনকে যিনি পলাতক, মানি লন্ডারিংয়ে সাজাপ্রাপ্ত।
রোববার পদ্মা সেতু পরিদর্শন শেষে মাদারীপুরের শিবচর উপজেলার কাঁঠালবাড়ী জনসভায় তিনি এসব কথা বলেন।
জাতীয় প্রেস ক্লাবে বিএনপি, ঐক্য প্রক্রিয়া, নাগরিক ঐক্য ও জেএসডি নিয়ে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নামে নতুন জোটের নাম করেন জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার আহ্বায়ক ও গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেন।
সারাদেশে মানুষের জীবনযাত্রায় পরিবর্তন এসেছে। গ্রাম-শহর বদলে গেছে। রাস্তাঘাট উন্নয়ন হয়েছে। কৃষকদের বিনে পয়সায় ঋণের ব্যবস্থা করেছি। মাত্র দশ টাকায় তারা ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খুলতে পারছে।
তি্নি আরো বলেন, প্রত্যেকটা মানুষের হাতে মোবাইল ফোনের ব্যবস্থা করেছি। যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন ঘটিয়েছি। সড়ক, নৌ, রেল, বিমানবন্দরের উন্নয়নে কাজ করেছি। ২০২১ সালের মধ্যে উন্নত সমৃদ্ধ দেশ গড়ে তুলতে চাই।
শেখ হাসিনা বলেন, যারা কোনও কাজ করতে পারেন না, তাদের জন্য ভিজিএফ কার্ড দিয়েছি। ১০০টা বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তোলা হয়েছে। বৃষ্টি ও নদী ভাঙন থেকে রক্ষা করতে ১২০০ কোটি টাকার প্রজেক্ট করে দিয়েছি। নদী ভাঙন রোধে বিশাল ড্রেজিং প্ল্যান করেছি।
তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর খুনিদের পুরস্কৃত করেছিল জিয়া। একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলা করে খালেদা জিয়া-তারেক আমাকে হত্যার চেষ্টা করেছিল। কিন্তু আওয়ামী লীগের ২২জন নেতাকর্মীকে হত্যা করে তারা। হত্যার বিচার যাতে না হয়, সেজন্য জজ মিয়া নাটক করেছিল। ২০০১ সালের পর এ অঞ্চলে যে নির্যাতন করেছিল, তা অবর্ণনীয়।
প্রধানমন্ত্রী ১১টা ১৮ মিনিটে মাওয়া প্রান্তে পদ্মা সেতুর নামফলক উন্মোচন, মুন্সীগঞ্জ এন-৮ মহাসড়কের ঢাকা-মাওয়া এবং পাঁচ্চর-ভাঙ্গা অংশের অগ্রগতি পরিদর্শন (মাওয়া প্রান্ত), পদ্মা রেল সংযোগ প্রকল্পের নির্মাণকাজ (মাওয়া প্রান্ত), মূল নদীশাসন কাজ সংলগ্ন স্থায়ী নদীতীর প্রতিরক্ষামূলক কাজের শুভ উদ্বোধন করেন।
স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা মো. শামসুদ্দিন খানের সভাপতিত্বে জনসভায় আরো বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী, আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আমির হোসেন আমু, নূরে আলম চৌধুরী লিটন প্রমুখ।

How useful was this post?

Click on a star to rate it!

Average rating 0 / 5. Vote count: 0

No votes so far! Be the first to rate this post.