মার্কিন প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করলো ইরান

0
(0)

মো: মাসুম বিল্লাহ,আন্তর্জাতিক ডেস্ক//
ইরানের সঙ্গে নতুন করে আলোচনায় যুক্তরাষ্ট্রের আগ্রহের বিষয়টিকে একপাক্ষিক আখ্যা দিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে আলোচনার কোনো প্রশ্নই আসে না বলে জানিয়েছে ইরান। শুক্রবার এক টুইট বার্তায় ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাভেদ জারিফ মধ্যপ্রাচ্যে চলমান সংঘাতময় পরিস্থিতির জন্য ট্রাম্প প্রশাসনকে দায়ী করে বলেন, হোয়াইট হাউজ বিশ্বকে অস্থিতিশীল করছে। এদিকে, মার্কিন স্বার্থ বিরোধী কোনো পদক্ষেপ নেয়া হলে ইরানের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার হুমকি পুনর্ব্যক্ত করেছে যুক্তরাষ্ট্র।
ইরানের সঙ্গে নতুন করে আলোচনায় যুক্তরাষ্ট্রের আগ্রহ প্রকাশের পর থেকেই বিভিন্ন গণমাধ্যম বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে প্রচার করে আসছে। কিন্তু মার্কিন প্রস্তাবকে একপাক্ষিক আখ্যা দিয়ে আবারো তা প্রত্যাখ্যান করেছে তেহরান। এর মধ্যেই জাতিসংঘে মার্কিন রাষ্ট্রদূত নিকি হ্যালির একটি মন্তব্য সমালোচনার জন্ম দিয়েছে। তিনি বলেছেন, জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের বৈঠকে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় আলোচনার প্রস্তাব দিয়েছে ইরান।
এর প্রতিক্রিয়ায় শুক্রবার নিকি হ্যালির বক্তব্যকে হাস্যকর বলে আখ্যা দিয়ে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বাহরাম কাশেমি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র মিথ্যা বলছে। সেসময় এমন কোনো আলোচনাই হয়নি উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, তাদের এমন অপপ্রচার নতুন কিছু নয়।
এর মধ্যেই এক টুইট বার্তায় ট্রাম্প প্রশাসনকে মধ্যপ্রাচ্যসহ বিশ্বের শান্তি ও নিরাপত্তার জন্য হুমকি বলে মন্তব্য করেছেন ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাভেদ জারিফ। যুক্তরাষ্ট্রকে আর ১০টা দেশের মতো স্বাভাবিক আচরণ করার আহ্বান জানান তিনি।
পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাভেদ জারিফ বলেন, ‘এটা সত্য, যে আমাদের এ অঞ্চল এবং বিশ্ব শান্তি ও নিরাপত্তা হুমকির মুখে আছে। মধ্যপ্রাচ্যের কিছু অসাধু গোষ্ঠীকে সঙ্গে নিয়ে বিশ্বকে অস্থিতিশীল করতে ট্রাম্প প্রশাসন নানা তৎপরতা বজায় রেখেছে।’
এদিকে, সংবাদমাধ্যম সিএনএনকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের স্বার্থ ক্ষুণ্ণ হয় এমন কোনো পদক্ষেপ নেয়া হলে ইরানকে ছেড়ে দেবে না ওয়াশিংটন।

How useful was this post?

Click on a star to rate it!

Average rating 0 / 5. Vote count: 0

No votes so far! Be the first to rate this post.