0
(0)

মো: মাসুম বিল্লাহ// চা পান নিয়ে এমন একখানা সহজ প্রশ্নের উত্তর পেতে লড়াই চলল বহুক্ষণ। সমীক্ষায় দু’ভাগ হয়ে গেল নবীন-প্রবীণ দুই দল। এক দল সটান জানিয়ে দিল, চা ফোটানোর সময় এতে দুধ দিয়ে ফোটালে মোটেই স্বাদ বাড়ে না চায়ের। বরং চায়ে দুধ মেশানো উচিত চা নামিয়ে পরিবেশনের আগে। আবার অপর এক দলের বক্তব্য, না, না, তা কী করে হয়! দুধ চা মানেই চায়ে আগে দুধ মেশানো।চায়ে দুধ মেশানো নিয়ে নানা জনের কাছ থেকে মতামত নেয়া হলো। উল্লেখযোগ্য ভাবে, ১৮-২৪ বছর বয়সী নবীন প্রজন্মের ৯৬ শতাংশই ভোট দিলেন চায়ে আগেই দুধ মেশানোর পক্ষে। তবে সব মিলিয়ে অংশগ্রহণকারীর ৭৯ শতাংশ ভোট দিলেন পরে দুধ মেশানোর প্রক্রিয়ায়। এদের মধ্যে বেশিরভাগই প্রবীণ প্রজন্ম। ধনী-দরিদ্র নির্বিশেষ বিশ্বাস করেন, পরে দুধ মেশানোতেই খোলতাই হয় চায়ের স্বাদ।ঘটনাটা ব্রিটেনের। চা পান যেখানে এক অত্যন্ত প্রিয় অবসর যাপন। সেখানে সম্প্রতি এমনই এক সমীক্ষা চালাল ব্রিটেনের ‘দ্য ইউগভ অমনিবাস’ নামের একটি সংস্থা। এমনিতেই মাঝে মাঝে ব্যস্ত জীবনে কিছুটা স্বাদ বদলাতে নানা ঘরোয়া বিতর্ক সভার আয়োজন করা হয় পাশ্চাত্যের বেশ কিছু দেশে। সে সব বিতর্কের বিষয়ও থাকে বেশ অভিনব। কখনো হয়তো কী ধরনের পোষ্য পালন করা উচিত তা নিয়েই উঠল যুক্তি-তর্কের তুমুল টক্কর। আবার কখনো বা সমীক্ষায় বেছে নেয়া হলো এমন এক বিষয়, যা নিয়ে আদৌ সমীক্ষা চলতে পারে এমন আশাই করেন না কেউ!আগেকার দিনে ধনী ব্রিটিশরা দামি পেয়ালায় জল ফোটাতেন টগবগিয়ে। পরে তাতে চা পাতা দিয়ে তা পরিবেশন করা হতো অতিথির সামনে। পাশে দেয়া থাকত মিল্ক পট। অতিথির ইচ্ছেমতো দুধের পরিমাণ তিনিই মিশিয়ে নিতেন চায়ে। সম্ভ্রান্ত পরিবারে অতিথি সেবার নিদর্শন ছিল এমনটাই।বলছে, আগে নয়, চা তৈরি হওয়ার পরেই মেশান দুধ।

How useful was this post?

Click on a star to rate it!

Average rating 0 / 5. Vote count: 0

No votes so far! Be the first to rate this post.