স্বরূপকাঠির নৌকার হাট ক্রেতা বিক্রেতায় সরগরম

0
(0)

হযরত আলী হিরু, স্বরূপকাঠি (পিরোজপুর) ॥
পিরোজপুরের স্বরূপকাঠিতে জমে উঠেছে নৌকা বিক্রির হাট। ক্রেতা ও বিক্রেতাদের ভিড়ে সরগরম এখন আটঘর খালের নৌকার হাট। নয়নোভিরাম নৌকার পসরা দেখলে মন জুড়িয়ে যায়। সপ্তাহের প্রতি শুক্রবার আটঘর খালে বিকিকিনি হয় নৌকার। গাভা গ্রামের মো. নাদির হোসেন (৬০) জানান আশির দশকের প্রথম দিকে এ খালে নৌকা বিক্রির হাট শুরু হয়। সহ¯্রাধিক পরিবার দীর্ঘদিন ধরে নৌকা-বৈঠা তৈরি ও বিক্রি করে তাদের জীবিকা নির্বাহ করে আসছে। নদী মাতৃক এ অঞ্চলের কৃষিজীবী মানুষের জীবন-জীবিকার অন্যতম বাহনই হচ্ছে নৌকা। আষ্ঢ়া মাস থেকে আশ্বিন মাস পর্যন্ত বসে এ নৌকার হাট। আটঘর খাল ও খালের পাড়ে রাস্তার ওপরে দু’পাশজুড়ে বিভিন্ন সাইজের নৌকার বেচাকেনা চলে সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত। নৌকা হাটে চামী গ্রামের নৌকা তৈরির কারিগর আনোয়ার হোসেন বলেন চাম্বল, মেহগিনি, কড়াই, রেইনট্রি, গুলাপ, আমড়া,বাদাম প্রভৃতি গাছের কাঠ দিয়ে নৌকা তৈরি করেন। ডুবি গ্রামের নৌকা মিস্ত্রী মোশাররফ জানান একটি নৌকা তৈরী করতে দু’জন শ্রমিকের সময় লাগে একদিন আর প্রকার ভেদে খরচ হয় ১ হাজার ৫’শ থেকে ২ হাজার ৫ ’শ টাকা আর বিক্রি হয় ১ হাজার ৮’শ থেকে ৩ হাজার টাকা। নৌকা ব্যবসায়ী সালেক জানান একশ্রেনির দুরাগত পাইকাররা এখান থেকে নৌকা কিনে অন্য জেলায় নিয়ে বিক্রি করেন। স্থানীয়রা জানান, এ অঞ্চলের ব্যবসায়ীরা বর্ষা ও পানির এ মৌসুমে ধান, বিলের শাপলা, শাক সব্জবি, চাঁই পাতা, নার্সারি ব্যবসা, পেয়ারা, আমড়া, পানি কচু, লেবু, কলা প্রভৃতি কাাঁচামাল ও ফসলের বেচাকেনা হয় নৌকায় করেই। আর এ কারণেই এ সময় নৌকার কদর বেড়ে যায়। প্রতি হাটে ২’শ থেকে আড়াইশ নৌকা বিক্রি হয় বলে ব্যবসায়ীরা জানান। ব্যবসায়ী সুত্র জানায় মৌসুমে প্রায় কোটি টাকার নৌকা কেনাবেচা হয় এ হাটে ।

How useful was this post?

Click on a star to rate it!

Average rating 0 / 5. Vote count: 0

No votes so far! Be the first to rate this post.