মানুষের অধিকার ফেরাতে আন্দোলন-বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল

0
(0)

সবুজ বাংলা অনলাইন ডেস্ক//
মন্ত্রী হওয়ার জন্য নয় মানুষের অধিকার ফেরাতে আন্দোলন,বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন ‘বিএনপিকে ক্ষমতায় আনার জন্য নয়, এমপি মন্ত্রী হওয়ার জন্য নয়, এদেশের মানুষের অধিকার ফিরিয়ে দেবার জন্য আমরা একটা পরিবর্তন চাই। আমরা আমাদের অধিকার ফিরে পেতে চাই। স্বাধীনতা ফিরে পেতে চাই। আমরা নির্ভয় চলার অধিকার ফিরে পেতে চাই।’
চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সুচিকিৎসার দাবিতে শুক্রবার বিকেলে বিএনপির নয়াপল্টন কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে অনুষ্ঠিত সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
দেশের প্রতিটি মানুষ ভয়ে আছে মন্তব্য করে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘জনগণ জানে না, কখন যে তারা গুম হয়ে যায়। কোটা আন্দোলনকারীদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে তুলে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। মিথ্যা মামলা দেয়া হচ্ছে। তাদের কারাগারে পাঠানো হচ্ছে। নির্যাতন করে বাড়ি পাঠিয়ে দেয়া হচ্ছে।’
বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা আমাননুল্লাহ আমান তার বক্তব্যে ব‌লেন, ‘আপনারা প্রস্তুত থাকেন। এই সৈরাচারী সরকারের পতন ঘটাতে হ‌বে। সরকারের পতন ঘটাতে আর একটা ধাক্কা দি‌তে হবে।’
তিনি বলেন, সরকার বেগম খা‌লেদা জিয়াকে কারাগা‌রে রে‌খে খ‌ুলনা ও গা‌জীপুর মার্কা নির্বাচন কর‌তে চায়। কিন্তু সরকারের এই উদ্দেশ্য সফল হবে না। গণত‌ন্ত্রের মা‌কে জে‌লে রে‌খে বাংলা‌দে‌শে কোনও নির্বাচন হ‌বে না। নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে আমান বলেন, ‘দেশের গণতন্ত্র ও গণত‌ন্ত্রের মাকে বন্দী ক‌রে‌ছে এই অবৈধ সরকার। মিথ্যা মামলায় তা‌রেক রহমানকে সাজা দি‌য়ে‌ছে এই জালিম সরকার। তারেক রহমানকে দে‌শে ফি‌রি‌য়ে আন‌তে হ‌বে। তার জন্য আমা‌দের যা করার দরকার কর‌তে হ‌বে।’
‌তি‌নি আরো ব‌লেন, ‘সংস‌দে শেখ হা‌সিনা ব‌লে‌ছি‌লেন দে‌শে কোনও কোটা থাক‌বে না, কোটা সংস্কার করা হ‌বে না সব কোটা বা‌তিল কিন্তু তি‌নি এখন বল‌ছে কোটা থাক‌বে। এক মু‌খে দুই কথা তি‌নি একজন মিথ্যাবা‌দী প্রতারক। হা‌সিনার এ অহংকার বেশি দিন থাক‌বে না। তা‌র পতন হ‌বে এবং বেগম খা‌লেদা জিয়া এই দে‌শের প্রধানমন্ত্রী হ‌বেন।’
সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড.খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, আব্দুল মঈন খান, ভাইস-চেয়ারম্যান ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন, নিতাই রায় চৌধুরী, চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা জয়নুল আবদিন ফারুক, সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সাধারণ সম্পাদক কাজী আবুল বাশার, উত্তরের সাধারণ সম্পাদক আহসান উল্লাহ হাসান, গণশিক্ষা বিষয়হ সম্পাদক অধ্যক্ষ সেলিম ভূইয়া, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল সালাম আজাদ, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শফিউল বারী বাবু, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদির ভূইয়া জুয়েল, ছাত্রদলের সভাপতি রাজিব আহসান, সাধারণ সম্পাদক করামুল হাসান মিন্টু প্রমুখ।

How useful was this post?

Click on a star to rate it!

Average rating 0 / 5. Vote count: 0

No votes so far! Be the first to rate this post.