বিশ্বকাপে খেলবেন মোহাম্মদ সালাহ

এস এম রহমান হান্নান স্টাফ রিপোর্টার//
কেমন আছেন মোহাম্মদ সালাহ বিশ্বকাপে খেলবেন তিনি এমন প্রশ্নের ইতিবাচক জবাব পেতেই উৎকণ্ঠায় সময় পার করছেন ফুটবল ভক্তরা। কিন্তু পাওয়া যাচ্ছে না সুনিশ্চিত কোনো বক্তব্য। ইয়ুর্গেন ক্লপ বলছেন, গুরুতর চোটে পড়েছেন সালাহ। মিসরের ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন জানিয়েছে, রাশিয়ায় সালাহকে পেতে আশা দেখছে তারা। সৌদি আরবিয়ান স্পোর্টস অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের তুর্কি আল-শেখ নিশ্চিত করেছে, বিশ্বকাপ স্বপ্ন শেষ লিভারপুল ফরোয়ার্ডের। রাত ৮টায় এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত এভাবেই উড়ে আসছিল নানা তথ্য। তাতে অনিশ্চিয়তাতেই রাশিয়া বিশ্বকাপে সালাহর অংশগ্রহণের বিষয়টি।
সালাহকে নিয়ে উৎকণ্ঠার জš§ শনিবার রাতে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে। ম্যাচের ২৫ মিনিটের মাথায়। ওই সময় বল দখলের লড়াই চলছিল সার্জিও রামোস এবং সালাহর মধ্যে। তাতেই ঘটে যত বিপত্তি। অসাবধানতার কারণে সালাহর ডান হাত পেঁচিয়ে যায় রামোসের বাম হাতের সঙ্গে। শরীরের ভারসাম্য হারিয়ে দুজনেই পড়ে যান মাটিতে। আর রিয়াল তারকার ভারে ডান কাঁধে চোট পান মিসরীয় ফুটবল জাদুকর। যদিও প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে চালিয়ে যান খেলা। কিন্তু সেটা মাত্র ৫ মিনিট। ৩০তম মিনিটে মাঠ ছাড়েন কান্নায় ভেসে।
পরে ম্যাচ শেষে দুঃসংবাদ শোনান অল রেডদের কোচ ক্লপ, ‘ইনজুরি গুরুতর। সালাহ এক্সরের জন্য হাসপাতালে অবস্থান করছেন। হয়তো হাড়ের যুক্তস্থানে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে অথবা কাঁধেই কিছু একটা হয়েছে। এটা মোটেও ভালো দেখাচ্ছে না। এটাই শেষ কথা।’ রিয়ালের বিপক্ষে হারের কারণ হিসেবে ওই ঘটনাকে তুলে ধরলেন লিভারপুল বস, ‘অবশ্যই, এটা বড় একটা মুহূর্ত ছিল। সত্যিই ওটা খুব বাজে একটা ট্যাকল ছিল। অনেকটা কুস্তির মতো। এখানেই ছেলেরা সবচেয়ে বড় ধাক্কা খেয়েছে।’
ক্লপ যখন এমন বক্তব্য দেন, তখনো প্রকাশ হয়নি এক্সরের ফলাফল। যা জানা গেছে পরের দিন রোববার (বাংলাদেশ সময় অনুযায়ী)। তাতে অবশ্য আশার বাণীই শুনিয়েছে মিসরের ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন। এক টুইট বার্তায় সংস্থাটি জানায়, এখনো সব শেষ হয়ে যায়নি সালাহর, ‘ফোনের মাধ্যমে আমরা সালাহর ইনজুরির আপডেট নিয়েছি। লিভারপুলের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, এক্স-রের প্রতিবেদন পাওয়া গেছে সালাহর। সেখানে দেখা গেছে, কাঁধের জয়েন্টে আঘাত পেয়েছেন তিনি। চিকিৎসক আবু এলা জানিয়েছেন, তার পরীক্ষা অনুযায়ী বিশ্বকাপে খেলতে পারবেন সালাহ।’
তবে মিসর ফুটবল ফেডারেশনের সেই আশার বাণীতে পানি ঢেলে দিয়েছে তুর্কি আল-শেখ। তিনি সামাজিক গণমাধ্যম ফেসবুকে নিশ্চিত করেছেন, রাশিয়া বিশ্বকাপের সালাহর অংশগ্রহণ না নেয়ার তথ্যটি। সালাহ যেন দ্রুত সেরে ওঠেন সেই প্রত্যাশাই করেছেন তিনি, ‘দুঃখের সহিত বলতে হচ্ছে, আমাদের সুপারস্টার সালাহ ইনজুরির কারণে দুই মাসের জন্য মাঠের বাইরে চলে গেছেন। এটার অর্থ, বিশ্বকাপ মিস করছেন তিনি। দ্রুত সেরে উঠে তিনি মাঠে ফিরতে পারবেন এই প্রত্যাশাই করছি।’
ক্লাব লিভারপুলও সালাহকে খেলতে সম্মতি দেবে বলে উল্লেখ করে আল শেখ আরো বলেন, ‘আমি মনে করি, সালাহকে নিয়ে লিভারপুলও কোনো ঝুঁকি নেবে। কারণ এই ধরনের ইনজুরি অনেক দীর্ঘ সময়ের খেলোয়াড়কে মাঠে ছিটকে দিতে পারে। তাই সালাহকে দুই মাস চিকিৎসার মাঝেই রাখা হতে পারে। যেটা দুর্ভাগ্যজনক। সালাহর মতো তারকাকে রাশিয়ায় পর্দা ওঠা ফিফার সবচেয়ে বড় এবং রঙিন আসরে দেখতে পারবে না কেউ।’
বক্তব্যের সবার শেষেও নিজের বাণীকে সত্য বললে তুর্কি আল-শেখ, ‘যখন আমি সৌদি দল নিয়ে কথা বলব সেটা হয়তো উত্তেজনার বশবর্তী হয়ে। আমি ভুল আবার সঠিকও হতে পারি। অথবা কখনো কখনো কিছু বাজে শব্দও ব্যবহার করতে পারি। কিন্তু যখন সালাহর প্রসঙ্গ আসবে… সে আরবের অবিশ্বাস্য এক খেলোয়াড় এবং আমাদের মাথা উঁচু রাখেন। আমি তার ভক্ত। যদিও আমি দোয়া করতাম, বিশ্বকাপে সে আমাদের দলের বিপক্ষে ম্যাচে না খেলুক। আমি এই ম্যাচেই তাকে মিস করতে চেয়েছিলাম, শুধুমাত্র এই ম্যাচেই।