গৌরনদীতে গৃহবধুর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

0
(0)

গৌরনদী (বরিশাল) প্রতিনিধি//
বরিশালের গৌরনদী মডেল পুলিশ বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার নলচিড়া গ্রামের স্বামীগৃহের পাকা বাস ভবনের জানালার গ্রিলের সাথে ঝুলন্ত অবস্থায় পলি বেগম (২২) নামের দেড় বছর বয়সী একটি পুত্র সন্তানের জননী এক গৃহবধুর লাশ উদ্ধার করেছে।
ঘটনার পরপরই গা ঢাকা দিয়েছে ওই গৃহবধুর স্বামী, শাশুড়ি ও স্বশুর বাড়ির লোকজন। এ ঘটনায় ওই রাতেই থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে। এটি হত্যা না আতœহত্যা তা নিয়ে দ্বিধা-দ্বন্দে রয়েছে নিহত গৃহবধুর স্বজন ও প্রতিবেশীরা।
নিহতের স্বজন ও পুলিশ সুত্রে জানাগেছে, গত প্রায় ৫ বছর পূর্বে উপজেলার কলাবাড়িয়া গ্রামের ব্রুনাই প্রবাসী শহীদ হাওলাদারের মেয়ে পলি বেগমের বিয়ে হয় উপজেলার নলচিড়া বাজারের কসমেটিকস দোকানদার তোতা মীর এর সাথে। বিয়ের কিছুদিন যেতে না যেতেই তাদের স্বামী স্ত্রীর মধ্যে কলহ বিবাদ শুরু হয়। স্বামী তোতা মীর পর নারীতে আসক্ত হওয়াই তাদের এ কলহ-বিবাদের মূল কারন। ইতোমধ্যে পলি একটি পুত্র সন্তানের মা হয়। ওই ছেলের বয়স এখন দেড় বছর।
নিহত গৃহবধু পলি বেগমের মা হামিদা বেগম জানান, কি ভাবে কি হয়ে গেল বলতে পারবোনা। তবে বৃহস্পতিবার আছরের নামাজের পড়ে জামাই তোতা মীর আমাকে ফোন করে বলে আপনার মেয়ে আবার অশান্তি শুরু করেছে ওকে এসে নিয়ে যান। তা না হলে আমি আতœহত্যা করব। জামাইযের মুখ থেকে এ কথা শোনার পর আমি আমার ননদকে পাঠিয়েছি ওদের সাথে কথা বলে কলহ বিবাদ মিটমাট করে দেয়ার জন্য। ননদ সিরিয়া বেগম সেখানে গিয়ে মেয়ের লাশ ঝুলতে দেখে আমাকে খবর দেয়।
গৌরনদী মডেল থানার এসআই মোঃ ইকবাল কবির জানান, বৃহস্পতিবার রাত পৌনে ১০টার দিকে এলাকাবাসীর মাধ্যমে খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহতের লাশ উদ্ধার করে রাত দেড়টার মধ্যে বরিশাল মর্গে পাঠাই। সুরত হাল তৈরীকালে লাশের গায়ে কোন আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। তরে লাশটি যে ভাবে পাওয়া গেছে তাতে এ মৃত্যু নিয়ে সন্দেহ জাগে।

How useful was this post?

Click on a star to rate it!

Average rating 0 / 5. Vote count: 0

No votes so far! Be the first to rate this post.