গৌরনদীর শীর্ষ সন্ত্রাসী ও হত্যা মামলায় যাবতজীবন সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামী সেন্টু মৃধা গ্রেফতার

0
(0)

গৌরনদী (বরিশাল) প্রতিনিধি//
বরিশালের গৌরনদীর শীর্ষ সন্ত্রাসী ও মাদক সম্ম্রাট এবং একটি হত্যা মামলায় যাবতজীবন সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামী সেন্টু মৃধা ৭২ পিস ইয়াবাসহ গতকাল মঙ্গলবার সকালে পার্শ্ববর্তি আগৈলঝাড়া থানা পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়েছে। দুর্ধর্ষ ওই সন্ত্রাসীর বিরুদ্ধে গৌরনদী ও পার্শ্ববর্তি আগৈলঝাড়া এবং কালকিনি থানায় হত্যা, ধর্ষণ, চাঁদাবাজি ও মাদক ব্যবসার গডফাদারগিরিসহ বিস্ফোরকদ্রব্য বহন এবং বিশেষ ক্ষমতা আইনে অন্তত ১৮টি মামলা রয়েছে।
পুলিশ সুত্রে জানাগেছে, গৌরনদী উপজেলার নন্দনপট্রি গ্রামের বহুল আলোচিত হত্যাকান্ড, খাদেম সরদার হত্যা মামলায় বরিশাল জেলা ও দায়রা জজ আদালত গত ৭মার্চ দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসী সেন্টু মৃধার বড়ভাই উপজেলার নন্দনপট্টি গ্রামের শফিজউদ্দিন মৃধার ছেলে সাবেক ইউপি সদস্য নান্নু মৃধাকে ফাঁসির আদেশ ও গ্রেফতার হওয়া সেন্টু মৃধা এবং তার সহযোগী উপজেলার ধানডোবা গ্রামের ফানুস মৃধার ছেলে আলাম মৃধাকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড দেয়।
ফাসির দন্ডাদেশ প্রাপ্ত দুধর্ষ সন্ত্রাসী নান্নু মৃধা ও যাবতজীবন সাজাপ্রাপ্ত আলাম মৃধা বর্তমানে কারাগারে থাকলেও সেন্টু মৃধা দীর্ঘদিন ধরে পলাতক থেকে পার্শ্ববর্তী আগৈলঝাড়া উপজেলার রাজিহার ইউনিয়নের নিভৃত পল্লীতে আস্তানা গেরে রমরমা ভাবে ইয়াবার ব্যবসা করে আসছিল।
আগৈলঝাড়া থানার ওসি আব্দুর রাজ্জাক মোল্লা জানান, গোপন সুত্রে খবর পেয়ে থানা পুলিশ গতকাল মঙ্গলবার সকালে উপজেলার রাজিহার ইউনিয়নের চেঙ্গুটিয়া গ্রামের চৌদ্দমেদা বিলের মধ্যে অভিযান চালায়। সকাল ১০টার দিকে ওই বিলের ভেতরে নির্মিত একটি টোং ঘর থেকে সেন্টু মৃধা(৩৫)কে ৭২ পিস ইয়াবাসহ গ্রেফতার করে। এ এসময় তার এক অজ্ঞাতনামা সহযোগী সেখান থেকে পালিয়ে যায়। পুলিশ এখনও ওই সহযোগীর নাম জানতে পারেনি।
পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সন্ত্রাসী সেন্টু মৃধা পুলিশের কাছে ওই এলাকায় ইয়াবা ব্যবসা নিয়ন্ত্রনে স্থানীয় একজন জনপ্রতিনিধিসহ একাধিক ব্যাক্তির নাম প্রকাশ করেছে। তার কাছে থাকা আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধারের জন্য পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদ অব্যাহত রয়েছে।
এ ঘটনায় থানার এসআই শাহানুর মিয়া বাদী হয়ে গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।
এলাকাবাসী জানায়, হত্যা মামলায় দন্ডপ্রাপ্ত সাবেক ইউপি সদস্য ও মাদক স¤্রাট নান্নু মৃধা ও তার ভাই দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসী সেন্টু মৃধা মিলে স্থানীয় কতিপয় সহযোগীর সহয়তায় এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে মাদক ব্যবসা করে আসছিল। এ ঘটনায় ক্ষুব্দ ওই এলাকার আল আকসা জামে মসজিদ কমিটির সদস্যরা ওদের মাদক ব্যবসা বন্ধে সোচ্চার হন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে দন্ডপ্রাপ্তরা বিগত ২০১৪ সালের ১৩ অক্টোবর রাত সোয়া ৮টার দিকে ওই গ্রামের সরদার বাড়ি সংলগ্ন খালপাড়ে বসে আল আকসা জামে মসজিদ কমিটির সাধারণ সম্পাদক শাহআলম সরদার, তার বাবা ওই মসজিদ কমিটির সহসভাপতি খাদেম সরদার ও ভাই আসলাম সরদারের ওপর ধারালো অস্ত্র নিয়ে হামলা চালায়। হামলার শিকার খাদেম সরদার এ সময় ঘটনাস্থলেই নিহত হন। ঘটনার পর শাহ আলম সরদার বাদি হয়ে গৌরনদী মডেল থানায় হত্যা মামলাটি দায়ের করেন।

How useful was this post?

Click on a star to rate it!

Average rating 0 / 5. Vote count: 0

No votes so far! Be the first to rate this post.