নাজিরপুরে পুলিশ পিটিয়ে আসামী ছিনতাইয়ের ঘটনায় ৪ জন গ্রেফতার

0
(0)

হযরত আলী হিরু, পিরোজপুর প্রতিনিধি ॥
পিরোজপুরের নাজিরপুরে থানা পুলিশের এক উপ-পরিদর্শকসহ এক কনস্টেবলকে পিটিয়ে অস্ত্র ছিনতাইয়ের চেষ্টা এবং এক আসামীকে ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় টিএন্ডটি’র এক কর্মকর্তা ও এক জামায়াত নেতাসহ ৭ জনের নাম এবং অজ্ঞাতনামা ৮/১০ জনের বিরুদ্ধে মঙ্গলবার রাতে নাজিরপুর থানায় একটি মামলা রুজু করা হয়েছে। পুলিশ ওই মামলার এজাহার ভুক্ত ৪ আসামী উপজেলার হোগলাবুনিয়া গ্রামের মৃত কাছেম আলীর ছেলে ও টিএন্ডটি’র সহকারী ইঞ্জিনিয়ার (বাগেরহাট জেলায় কর্মরত) এমদাদুল হক (৫৫), একই গ্রামের আজাহার আলী বিশ^াসের ছেলে লিটন বিশ^াস (৩৫), মৃত মোজাফ্ফর বিশ^াসের ছেলে শাহজাহান বিশ^াস (৫৫) এবং মামুন বিশ^াসের স্ত্রী পলি বেগমকে (৩০) গ্রেফতার করেছে। থানা পুলিশ ও মামলা সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার হোগলাবুনিয়া গ্রামের মোশারফ বিশ^াস নামে এক ব্যক্তিকে প্রতিপক্ষরা মারধর করে ঘরে আটক করে রেখেছে। এমন সংবাদের ভিক্তিতে আটক ওই ব্যক্তিকে উদ্ধার করতে গত মঙ্গলবার দুপুরে নাজিরপুর থানা পুলিশের উপ-পুলিশ পরিদর্শক (এসআই) আব্দুল হালিম ও কনস্টেবল নাসিরুজ্জামান সেখানে যায়। এ সময় মোশারফ বিশ^াসকে একটি ঘরে আটক পেয়ে উদ্ধার করে ভ্যান যোগে হাসপাতালে প্রেরণের চেষ্টাকালে ওই গ্রামের দেলোয়ার বিশ^াসের ছেলে রুবেল বিশ^াস (৩০) পুলিশের কাজে বাধা প্রদান করে। এ সময় নাজিরপুর থানা পুলিশের উপ-পুলিশ পরিদর্শক (এসআই) আব্দুল হালিম তার পরিচয় জানতে চাওয়ায় সে পুলিশের ওপর ক্ষিপ্ত হয়ে বাক-বিতন্ডায় জড়িয়ে পড়ে। এক পর্যায়ে রুবেল পুলিশের পরিদেয় সরকারি পোষক ধরে কয়েকটি ঘুষি মারে এবং টানা-হেচড়া করে পুলিশ অফিসারের র্যাংক-ব্যাজ ছিড়ে ফেলে। এ সময় পুলিশ রুবেলকে আটক করে। তখন রুবেলকে ছাড়িয়ে নিতে তার সহয়োগীরা চার দিক থেকে দুই পুলিশ সদস্যকে ঘিরে ধরে মারপিট করতে থাকে। এ সময় রুবেল পুলিশ অফিসারের কোমরে থাকা পিস্তল ছিনাইয়া নেয়ার চেষ্টা কালে তিনি পিস্তল রক্ষা কালে অন্যান্যরা রুবেলকে ছিনিয়ে নেয়।নাজিরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. হাবিবুর রহমান জানান, এ ঘটনায় থানায় একটি মামলা রুজু করা হয়েছে। মামলা এজাহার ভুক্ত ৪ আমাসীকে গ্রেফতার করে বুধবার আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

How useful was this post?

Click on a star to rate it!

Average rating 0 / 5. Vote count: 0

No votes so far! Be the first to rate this post.