কমলগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার অভাবে শিশুর মৃত্যুর অভিযোগ

0
(0)

কমলগঞ্জ(মৌলভীবাজার)প্রতিনিধি//
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে শ্বাসকষ্ট জনিত রোগে আক্রান্ত হয়ে বৃহস্পতিবার(২৬ এপ্রিল) ভর্তি হওয়ার পর চিকিৎসার অভাবে এক শিশুর মৃতে্যু হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। গতকাল(২৭ এপ্রিল) শুক্রবার বিকাল ৩টা ২০ মিনিটের সময় কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এ ঘটনা ঘটছে বলে মৃত শিশুর মা অভিযোগ করেন। লাশ হস্তান্তর নিয়ে জটিলতা করে অবশেষে সন্ধ্যা ৬টায় শিশুর লাশ তার মায়ের কাছে দিলেও তিনি লাশ নিয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বসে থাকেন দায়িত্বশীল কারো কাছে অভিযোগ দিয়েই লাশ নিতে যাবেন বলে।
মৃত শিশু মা মিরজান বেগম অভিযোগ করে বলেন, সীমান্তবর্তী ইসলামপুর ইউনিয়নের গুলের হাওর গ্রাম থেকে বৃহস্পতিবার রাত ৮টায় শিশুটির শ্বাসকষ্ট জনিত রোগে আক্রান্ত হলে কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করি। রাতে কোন চিকিৎসা সেবা পাওয়া যায়নি। সকালে শিশুটিকে একটি ইনজেকশন প্রয়োগ করার পর অবস্থার কিছুটা অবনতি হয়েছে। পরে জরুরী বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক প্রশান্ত পালকে অবগত করার পরও প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সেবা পাওয়া যায়নি। এক পর্যায়ে শিশুটিকে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে স্থানান্তরের অনুরোধ করলেও তাকে স্থানান্তর করেননি তারা। অবশেষে জরুরী বিভাগেই শিশু মিম মারা যায়।
তিনি আরও বলেন, চিকিৎসকরা সঠিকভাবে সেবা দিলে হয়ত সে মারা যেত না। তাছাড়া মৃত্যুর পর লাশ তার কাছে দিলেও এ মৃত্যুর জন্য অভিযোগ দিয়ে লাশ নিয়ে ফিরবেন বলে দায়িত্বশীল একজন চিকিৎসকের অপেক্ষায় বসে রয়েছেন বলে শিশুর মা জানান।
এব্য্যাপারে চিকিৎসক প্রশান্ত পাল বলেন, শিশুটি এ আর ই একুইট রেসপেটরী ইনফেকশন শ্বাসকষ্ট জনিত রোগে রাতে ভর্তি হলেও সকালে আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার ডা: সাজেদুল কবির তাকে দেখেছেন। পরে দুপুর বেলায় শিশুটিকে মুমূর্ষূ অবস্থায় জরুরী বিভাগে নিয়ে আসার ৫ মিনিটের মধ্যে সে মারা যায়। এখানে আমার করার কিছু ছিলনা।
কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার ডা: সাজেদুল কবির শিশুর মৃত্যুর সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এটি একটি অনাকাঙ্খিত ঘটনা। সকালে শিশুটিকে দেখে একজন শিশু বিশেষজ্ঞকে দেখানোর জন্য তিনি পরামর্শ দিয়েছিলেন। আসলে এ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যেমন চিকিৎসক সংকট তার মাঝে কোন শিশু চিকিৎসক নেই। কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. ইয়াহিয়া বলেন, এত বড় একটি ঘটনা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে কেউ জানায়নি। খোঁজ নিয়ে বিষয়টি গুরুত্বসহকারে খতিয়ে দেখা হবে বলেও জানান।

How useful was this post?

Click on a star to rate it!

Average rating 0 / 5. Vote count: 0

No votes so far! Be the first to rate this post.