স্বরূপকাঠিতে নিখোজের ৫ দিন পর বস্তাবন্দী লাশ উদ্ধার

0
(0)

হযরত আলী হিরু, পিরোজপুর প্রতিনিধি:
পিরোজপুরের স্বরূপকাঠিতে নিখোজের ৫ দিন পর মিলন (২৩) নামের এক মোটর সাইকেল চালকের বস্তাবন্দী লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।বুধবার সকালে উপজেলার সোহাগদল গ্রামের মো. সিদ্দিকুর রহমানের টয়লেটের সেপটি ট্যাংকি থেকে অর্ধ গলিত ওই লাশ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনা সিদ্দিকের স্ত্রী রেহেনা বেগম ও তার ছেলে তাজিমকে নিহত মিলনের মোটর সাইকেলসহ আটক করা হয়েছে। নিহতের পারিবারিক সুত্রে জনাগেছে,উপজেলা বলদিয়া ইউনিয়নের রাজাবাড়ি গ্রামের শাহাদাত হোসেনের ছেলে মিলন গত শনিবার বেলা অনুমানিক ৩ টার দিকে মোটর সাইকেল নিয়ে ঘর থেকে বের হয়। কিন্তু সে বাড়ি ফিরে না আসায় স্বজনরা অনেক খোজাখুজি করে তার কোন সন্ধান পায়নি। এব্যাপারে গত সোমবার নেছারাবাদ থানায় সাধারন ডায়েরী করা হয়। মোটরসাইকেল নিয়ে মিলনের সাথে তাজিমের যোগসুত্রের খবর পয়ে নিহত মিলনের চাচা ফারুক, সেলিম রেজা সহ স্বজনরা মংগলবার সন্ধ্যায় বরিশাল থেকে ফেরার পথে তাজিমের মা রেহেনাকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। এ ব্যাপারে নেছারাবাদ থানার ওসি (তদন্ত) শহিদুল ইসলাম জানান, রেহানার দেয়া তথ্যমতে পুলিশ মিলনের লাশ উদ্ধার এবং তাজিমকে মোটর সাইকেলসহ বরিশালের রুপাতলী থেকে গ্রেফতার করেছে। সহকারি পুলিশ সুপার কাজী শাহ নেওয়াজ (নেছারাবাদ-কাউখালী সার্কেল) জানান, গ্রেফতার রেহেনা ও তাজিমকে জিজ্ঞাসাবাদে জানাযায়, একটি মোটরসাইকেল ক্রয়বিক্রয় নিয়ে মিলন তাজিমের বাড়িতে যায় সেখানে মিলনের সাথে তাজিমের তর্কবিতর্কের এক পর্যায়ে তাজিম হাতুড়ি দিয়ে মিলনের মাথায় আঘাত করে মেরে ফেলে। ঘটনার পরেই তাজিম মোটরসাইকেলটি নিয়ে পালিয়ে যায়। পরে তাজিমের মা রেহেনা আরও দুই জনের সহযোগীতায় মিলনের লাশ বস্তাবন্দি করে সেপটি ট্যাংকিতে ফেলে রাখে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত লাশ ময়না তদন্তের জন্য পিরোজপুর মর্গে প্রেরণ এবং মামলার প্রস্তুতি চলছে।

How useful was this post?

Click on a star to rate it!

Average rating 0 / 5. Vote count: 0

No votes so far! Be the first to rate this post.