উড়িবুনিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় স্বরূপকাঠিতে খোলা আকাশের নিচে পাটিতে বসে পাঠদান

হযরত আলী হিরু, পিরোজপুর প্রতিনিধি ॥
পিরোজপুরের স্বরূপকাঠির ৩ নং উড়িবুনিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে খোলা আকাশের নিচে পাটিতে বসে শিক্ষার্থীদের পাঠদান কর্মসূচি হচ্ছে। বিদ্যালয়টির অবকাঠামোগত ও বেঞ্চ সংকটের কারনে ওই দূর্ভোগের সৃষ্টি হয়েছে। সরেজমিনে ওই বিদ্যালয়টি ঘুরে জানা যায়, উপজেলার বলদিয়া ইউনিয়নের উড়িবুনিয়ার ওই বিদ্যালয়টি অত্র এলাকার ছেলেমেয়েদের লেখাপড়ায় গুরুত্বপূর্ন ভুমিকা রাখার পাশাপাশি ফলাফলে ব্যাপক সুনাম অর্জন করেছে। আশির দশকে নির্মিত বিদ্যালয় ভবনটি বর্তমানে ঝুকিপূর্ন হয়ে পড়েছে কিছুদিন পূর্বে ঝড়ে চালা উড়ে গেছে, দেয়ালের বিভিন্নস্থানে প্লাস্টার খসে ইট ও রড বেরিয়ে পড়েছে। ভবনের পিলার ভেঙ্গে রড বেরিয়ে পড়ায় যেকোন সময় দূর্ঘটনার আশংঙ্কায় বিদ্যালয়ের খেলার মাঠে খোলা আকাশের নিচে এলোপাথাড়িভাবে বসিয়ে বিভিন্ন শ্রেনীর শিক্ষার্থীদের পাঠদান দেয়া হচ্ছে। বেঞ্চ সংকটের কারনে কোমলমতি শিশুদের বসতে হচ্ছে পাটিতে। ভাংগাচোড়া বেড়ার কারনে মূল্যবান কাগজপত্র থাকে অরক্ষিত। টয়লেটের অভাবে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের প্রয়োজনীয় কাজ সারতে চরম ভোগান্তিতে পড়তে হয়। বিদ্যালয়টির পরিচালনা পর্ষদের সাবেক সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা মো. শাহ আলম তালুকদার বলেন, বিদ্যালয়টির কোল ঘেষে বয়ে গেছে বেলুয়া নদী যার অব্যহত ভাঙ্গনে ইতিমধ্যে বিদ্যালয়টির দুই তৃতীয়াংশ জমি নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। নদীর পাশে বিদ্যালয়টির কোন প্রাচীর না থাকায় যেকোন সময় নদীতে পড়ে গিয়ে শিক্ষার্থীদের দূর্ঘটনা ঘটতে পারে। প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনি পরিক্ষার সময় ১২ টি স্কুলের সেন্টার হিসেবে ওই বিদ্যালয়টিকে ব্যবহার করা হয়। বিদ্যালয়ের পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি মো. ইব্রাহিম তালুকদার বলেন, বিদ্যালয়ের ভবন ও বেঞ্চসহ বিভিন্ন সমস্যার কথা ইউএনওকে জানানো হলে তিনি সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দিয়েছেন কিন্তু কোন সুফল তারা পাচ্ছেন না বলে জানান। বিদ্যালয়টির ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মো. ছিদ্দিক তালুকদার জানান শিক্ষক সংকটের কথা তিনি আরও জানান তিন শতাধীক শিক্ষার্থীদের অনুকূলে এখানে শিক্ষক রয়েছে ৭ জন। এ ব্যাপারে ইউএনও আবু সাঈদের কাছে জানেতে চাইলে তিনি ছুটিতে আছেন জানিয়ে প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারের সাথে কথা বলতে বলেন। পরে বিষয়টি নিয়ে প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার দিলদার নাহার জানান, বিদ্যালয়টিতে পরিদর্শন করে প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে।