বাংলাদেশ হিযবুল্লাহ জমিয়াতুল মুছলিহীন ২২ বছরে পদার্পণ

ttমুহম্মদ আহছান উল্লাহ ও ফেরদাউস হাসানtt
বাংলাদেশ হিযবুল্লাহ জমিয়াতুল মুছলিহীন ১৯৯৭-২০১৮ বাংলাদেশ হিযবুল্লাহ জমিয়াতুল মুছলিহীন ইতোমধ্যে ২১ বছর বছর পূর্ণ করেছে, ২২ বছরে পদার্পণ করছে , চলুন সংগঠনটির প্রাসঙ্গিক কিছু তথ্য জেনে নেই। প্রখ্যাত আলেমেদ্বীন, বিশিষ্ট দার্শনিক ও সমাজ সংস্কারক হাদীয়ে যামান, ইনসানে কামেল হযরত মাওলানা মুহাম্মদ আযীযুর রহমান নেছারাবাদী কায়েদ ছাহেব হুজুর (রহ.) ছিলেন জাতি-ধর্ম নির্বিশেষে সকলের শ্রদ্ধাভাজন এবং ইত্তেহাদ মা’য়াল ইখতেলাফ ( মতানৈক্যসহ ঐক্য ) নীতির প্রবর্তক।
হযরত কায়েদ ছাহেব হুজুর রহ. (১৯১১-২৮/০৪/২০০৮) প্রতিষ্ঠা করেছিলেন ক্ষুদ্র ও বৃহৎ ৪২ টি প্রতিষ্ঠানের সমন্বয়ে ‘নেছারাবাদ কমপ্লেক্স ঝালকাঠি’। তাঁর প্রতিষ্ঠিত অন্যতম একটি বৃহৎ প্রতিষ্ঠান/ সংগঠন হল ‘বাংলাদেশ হিযবুল্লাহ জমিয়াতুল মুছলিহীন’।
#বাংলাদেশ হিযবুল্লাহ জমিয়াতুল মুছলিহীন সম্পর্কে ‘কালজয়ী কায়েদ’ গ্রন্থে লেখা হয়েছে,“ ব্যক্তি , সমাজ রাষ্ট্রীয় পর্যায়ে ইকামতে দ্বীন ও তাবলীগে দ্বীনের দায়িত্ব পালনের জন্য পরিচালিত সমগ্র বিচ্ছিন্ন প্রচেষ্টাকে এক লক্ষাভিসারী করার মানসে ইসলামে বিশ্বাসী সকল মত ও পথের অনুসারী , রাজনৈতিক ও অরাজনৈতিক আন্দোলন পরিচালনাকারী সংস্থাসমূহ এবং সকল ওলামা-মাশায়েখ , ইসলামপন্থী ও দেশপ্রেমিক নেতৃবৃন্দকে ‘ইত্তেহাদ মা’য়াল ইখতেলাফ’ তথা ‘( মতানৈক্যসহ ঐক্য)’ নীতির আলোকে নিজ-নিজ স্বকীয়তা বজায় রেখে ফেরকায়ী ও দলীয় চেতনার ঊর্ধে উঠে ঐক্যবদ্ধভাবে দ্বীনি খেদমত আন্জাম দেয়ার জন্য ১৯৯৭ সালের ৩ রা জানুয়ারি হযরত কায়েদ ছাহেব হুজুর রহ. প্রতিষ্ঠা করে গেছেন ‘বাংলাদেশ হিযবুল্লাহ জমিয়াতুল মুছলিহীন’। এ এক অভূতপূর্ব সংগঠন । যার যার অবস্থান থেকেই , দেশ-জাতি ও বিশ্বের কল্যানে একতাবদ্ধ হওয়ার একটি প্লাটফরম। আজ দিকে-দিকে হুজুরের আহবানে সাড়া দিয়ে দলীয় রাজনীতিমুক্ত এ সংগঠনে ঐক্যবদ্ধ হচ্ছে নানান পথ ও মতের মানুষ।”
#বাংলাদেশ হিযবুল্লাহ জমিয়াতুল মুছলিহীনের মুহতারাম আমীর হিসেবে বর্তমানে দায়িত্ব পালন করছেন ঝালকাঠি এন এস কামিল মাদরাসার সাবেক অধ্যক্ষ আমীরুল মুছলিহীন আলহাজ্ব হযরত মাওলানা মুহম্মদ খলীলুর রহমান নেছারাবাদী হুজুর (দ. বা.)।
আমীরুল মুছলিহীন হযরত নেছারাবাদী হুজুর (জ.৩০/১২/১৯৬৯) মুছলিহীনের ঐক্যের দাওয়াত দিতে গিয়েই ঝালকাঠি এন এস কামিল মাদরাসার অধ্যক্ষ পদ ও ছেড়ে দিয়েছেন। অধ্যক্ষের অর্ধলক্ষাধিক টাকার স্কেল পায়ে ফেলে দিয়ে #মুছলিহীনের ঐক্যের মিশন নিয়ে দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন আর সর্বস্তরের জনগণের কাছে #মুছলিহীনের ঐক্যের দাওয়াত দিচ্ছেন।# বাংলাদেশ হিযবুল্লাহ জমিয়াতুল মুছলিহীনের সেক্রটারী জেনারেলের দায়িত্ব পালন করছেন হযরত মাওলানা মুহাম্মদ মাছুম বিল্লাহ আযীযাবাদী হুজুর দা. বা.। তিনি দীর্ঘ দিন হযরত কায়েদ ছাহেব হুজুরের (রহ.) নেক সোহবত লাভে ধন্য হয়েছেন। তিনি তাঁর গোটা জীবনকে #মুছলিহীনের জন্য ব্যয় করছেন। বড় চাকরির সুযোগ পায়ে ঠেলে দিয়ে #মুছলিহীনের খেদমতকেই জীবনের লক্ষ্য হিসেবে নির্ধারণ করেছেন। # বাংলাদেশ হিযবুল্লাহ জমিয়াতুল মুছলিহীনের কার্যক্রম বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে দিতে কাজ করছে একদল একনিষ্ঠ কর্মী, তারা হলেন মুবাল্লিগবৃন্দ। আমীরুল মুছলিহীন হযরত নেছারাবাদী হুজুরের দিন-রাতের নিরবিচ্ছিন্ন কর্ম প্রচেষ্টায় আজ মুছলিহীন টেকনাফ থেকে তেতুলিয়া পর্যন্ত ছড়িয়ে পড়েছে। দেশের অধিকাংশ জেলা-উপজেলা-পৌরসভা-ইউনিয়ন হয়ে ওয়ার্ড পর্যন্ত মুছলিহীন কমিটি গঠিত হয়েছে। দেশর গণ্য-মান্য ব্যক্তিবর্গ মেম্বার-চেয়ারম্যান, মেয়র ও এমপিগণ পর্যন্ত মুছলিহীনের কার্যক্রম সমর্থণ করছেন, অনেকে কমিটির দায়িত্বশীল হিসেবে কাজ করছেন। #মুছলিহীনের বর্তমান স্রোত অব্যাহত থাকলে , ইনশাআল্লাহ অচিরেই সংগঠনটি মুসলমানদের আশার আলোয় পরিণত হবে।