লাউয়াছড়ায় ধরাপড়লো দুর্লভ সাপ

0
(0)

জয়নাল আবেদীন,কমলগঞ্জ মৌলভীবাজার

‘বেম্বো ট্রিংকিট স্নেক’ একটি বিরল প্রজাতির সাপ। এ সাপটির কোনো বাংলা নাম নেই। মাঝে মধ্যে ডিসকভারি চ্যানেলে দেখা যায়। বাস্তবে এ সাপের দেখা মেলা খুব দুষ্কর। কারণ এটি দুর্লভ একটি সাপ। আর এই দুর্লভ সাপটির দেখা পাওয়া যায় মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জের লাউয়াছড়ায়। ৩০ ডিসেম্বর শ্রীমঙ্গলের ফিনলে টি কোম্পানির সোনাছড়া চা বাগানের শ্রমিক নারায়ণের বাড়ির লাকড়ি রাখার ঘরে সাপটি ঢুকে পড়লে স্থানীয় বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশনে খবর দিলে সাপটি উদ্ধার করে বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশনে রাখা হয়েছে।

সাপ গবেষক সূত্রে জানা যায়, ‘বেম্বো ট্রিংকিট স্নেক’ দুধরাজ সাপেরই একটি জাতভাই। তবে দুধরাজ পাওয়া গেলেও ‘বেম্বো ট্রিংকিট’ সাপ খুব কম পাওয়া যায়। বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো ২০১১ সালে লাউয়াছড়া বনে ‘বেম্বো ট্রিংকিট স্নেক’ দেখাগিয়েছিল। আর বাংলাদেশ ছাড়া দক্ষিণ ও পূর্ব এশিয়ার দেশগুলোতে এ সাপটি দেখা যায়। এর মধ্যে রয়েছে ভারতের দার্জিলিং, সিকিম, আসাম, অরুণাচল, মিয়ানমার, ভুটান, থাইল্যান্ড, লাওস, কম্বোডিয়া, ভিয়েতনাম, নেপাল, দক্ষিণ চীন, তাইওয়ান, মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়া। বাংলাদেশ বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশনের পরিচালক সজল দেব বলেন, সাপটি এখন আমাদের হেফাজতে রয়েছে। দুই-এক দিনের মধ্যে সাপটি লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানে ছেড়ে দেওয়া হবে।

এব্যাপারে ক্রিয়েটিভ কনজারভেশন অ্যালায়েন্সের প্রধান নির্বাহী ও সাপ গবেষক শাহরিরায় রহমান সিজার বলেন, এ সাপটি দেখতে খুব সুন্দর। মাথা ছোট, তীক্ষণ ও চকচকে। গায়ের রং লাল। কালো ডোরা কাটা। এদের কোনো বিষ নেই। এ সাপটি প্রধানত সবুজ বনে বাস করতে বেশি পছন্দ করে। এরা ইঁদুর ও অন্যান্য প্রাণী খেয়ে জীবন ধারণ করে। এ সাপটি সারা বিশ্বেই দুর্লভ। তিনি আরও বলেন, বছরদুয়েক আগে লাউয়াছড়া বনের রাস্তার ওপর দুটি মৃত ‘বেম্বো ট্রিংকিট স্নেক’ পাওয়া গিয়েছিল। এবার আবারও এ সাপটি পাওয়ায় প্রমাণ হলো দেশে এরা এখনো টিকে রয়েছে।

How useful was this post?

Click on a star to rate it!

Average rating 0 / 5. Vote count: 0

No votes so far! Be the first to rate this post.