কমলগঞ্জে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নতুন পাঠ্যপুস্তক ছেড়া

0
(0)

কমলগঞ্জ মৌলভীবাজার প্রতিনিধি

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জের ধলই প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মধ্যে বিতরনের জন্য সংগ্রহে রাখা নতুন পাঠ্য পুস্তকগুলো দূস্কৃতিকারীরা ছিড়ে বিদ্যালয়ের বাহিরে ফেলে দেয়। বৃহস্পতিবার সকালে বই ছেড়ার চিত্র দেখা গেছে।

স্থানীয় ভাবে জানা যায়, উপজেলার মাধবপুর ইউনিয়নের সীমান্তবর্তী এলাকায় অবস্থিত ধলই চা বাগানের “ধলই প্রাথমিক বিদ্যালয়ে” উপজেলা শিক্ষা অফিস কর্তৃক আগামী ১লা জানুয়ারী শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন পাঠ্য পুস্তক বিতরন করার জন্য নিয়ে রাখা বই সমুহ অফিস কক্ষ ভেঙ্গে রাতে আঁধারে দূস্কৃতিকারীরা বই বের করে ছিড়ে ফেলে দেয়।

এব্যাপারে স্কুলের প্রধান শিক্ষক সত্য নারায়ন রাজভর জানান, স্কুলে ১ম শ্রেণী থেকে ৫ম শ্রেনীর মোট ২১৫ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে বিতরনের জন্য এনে রাখা ২১৫ সেট বই ছিড়ে বাহিরে ঝোঁপ-ঝাড়ের মধ্যে ফেলে রাখে। তিনি অভিযোগ করে বলেন, ১৬ ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবস পালন উপলক্ষে আয়োজিত খেলাধুলার পুরস্কার বিতরনী অনুষ্টানের মঞ্চে অত্র বাগানের দু’জনের সাথে বাকবিতন্ডা হয়। এ সময় স্থানীয় ইউপি সদস্যের সহযোগিতায় ঘটনার মিমাংসা হয়েছে। ঘটনার কয়েক দিন পর কে বা কারা স্কুলের ছোট-ছোট শিক্ষার্থীদের মধ্যে বিতরনের জন্য সংগ্রহে রাখা বই সমুহ ছিড়ে ঝোপ-ঝাড়ে ফেলে দিয়েছে।

এলাকাবাসী অভিযোগ করে বলেন, স্কুল ঘরের পাশের্^ই পরিত্যক্ত ঘরে নিয়মিত মাদকের আসর বসে। এ ঘটনায় স্কুল কর্তৃপক্ষ উপজেলা শিক্ষা অফিস ও কমলগঞ্জ থানাকে অবহিত করেছে। কমলগঞ্জ উপজেলা শিক্ষা অফিসার মো: মোশারফ হোসেন ধলই প্রাথমিক স্কুলের কয়েকটি বই ছিড়ে ফেলার ঘটনা স্বীকার করে বলেন, পুলিশ ঘটনাস্থলে গেছে। এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

মাধবপুর ইউপি চেয়ারম্যান পুষ্প কুমার কানু বলেন, চা শ্রমিকের শিশু সন্তানদেরকে শিক্ষার আলো থেকে বঞ্চিত করতেই কে বা কারা এই ঘটনা ঘটিয়েছে। তাদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদানের জন্য প্রসাশনের কাছে জোর দাবী রাখছি। ঘটনার খবর পেয়ে কমলগঞ্জ থানার এসআই মাহবুব আহমেদের নেতৃত্বে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। কমলগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মো. মোক্তাদির হোসেন পিপিএম বলেন, এ ব্যাপারে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

How useful was this post?

Click on a star to rate it!

Average rating 0 / 5. Vote count: 0

No votes so far! Be the first to rate this post.