আগৈলঝাড়ায় সুদের টাকার জন্য অন্তঃসত্তা গৃহবধূকে নির্যাতন।

আগৈলঝাড়া প্রতিনিধি॥
বরিশালের আগৈলঝাড়ায় সুদের টাকার জন্য অন্তঃসত্তা গৃহবধূকে শারীরিক নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। গুরুতর অবস্থায় ওই গৃহবধূকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এঘটনায় থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। স্থানীয় ও আহতসূত্রে জানা গেছে, উপজেলার রতœপুর ইউনিয়নের বারপাইকা গ্রামের মৃত. শশধর বাড়ৈর ছেলে সুশীল বাড়ৈর কাছ থেকে একই এলাকার দিন মজুর সুশান্ত পান্ডে দুই হাজার টাকা সুদে আনেন। সময়মত টাকা দিতে না পারায় শনিবার বিকেলে সুদের টাকার জন্য তাগাদা দেয় সুশীল বাড়ৈ। টাকা দিতে না পরায় উভয়ের মধ্যে কথাকাটাকাটির এক পর্যায় দিন মজুর সুশান্ত পান্ডেকে মারধর করে সুশীল বাড়ৈ। এসময় সুশীলের অপর দ্ইু ভাই শিশির বাড়ৈ ও সমীর বাড়ৈ হামলায় অংশ নেয়। হামলার হাত থেকে স্বামীকে বাঁচাতে গেলে অন্তঃসত্তা স্ত্রী ইতি পান্ডেকে পেটে লাথি মারে সুশীল বাড়ৈ। এসময় ইতির রক্তক্ষরণ শুরু হলে স্থানীয় চিকিৎসক কৃষ্ণকান্ত বাড়ৈ প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়। দীর্ঘ সময়ে রক্তক্ষরণ বন্ধ না হলে ইতি পান্ডেকে মুমুর্ষ অবস্থায় গৌরনদী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় ইতির পরিবার থেকে থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে অভিয্ক্তু সুশীল বাড়ৈ মারধর করার অভিযোগ আস্বীকার করলেও স্থানীয় ইউপি সদস্য প্রফুল্ল পান্ডে ও মহিলা ইউপি সদস্য ঊষা রানী নির্যাতীত ইতি বাড়ৈকে হাসপাতালে দেখতে যান এবং মারধরের কথা স্বীকার করেন।