দূতাবাসগুলোকে সজাগ থাকার আহ্বান আবুল বারকাতের

0
(0)

প্রতিবেদক : বিদেশে বাংলাদেশি দূতাবাসগুলো আরো সজাগ হলে শ্রমিক নির্যাতন হয়রানি কমে আসবে। ফলে তারা আরো বেশি রেমিটেন্স পাঠাবে, যা বাংলাদেশের অর্থনীতির চালিকাশক্তিকে আরো বেগবান করবে। মঙ্গলবার রাজশাহীতে অভিবাসন ও উন্নয়ন পরিকল্পনা বিষয়ে এক বিভাগীয় পরামর্শমূলক সভায় মুখ্য আলোচকের বক্তব্যকালে অর্থনীতিবিদ আবুল বারকার এসব কথা বলেছেন।
তিনি বলেন, স্বাধীনতার পর র্দীঘ সময়েও বাংলাদেশে নিরাপদ বৈদেশিক কর্মসংস্থান ও অভিবাসন নীতিমালা হয়নি। এছাড়া বৈদেশিক কর্মসংস্থানের বিষয়ে বাইরের দেশের সাথে দেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দুর্বল নোগোশিয়েশনের কারণে ন্যায্য পারিশ্রমিক থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন অভিবাসীরা।
আবুল বারকাত তার প্রবন্ধে উল্লেখ করেন, গত চার দশকে বাংলাদেশী অভিবাসীর সংখ্যা ১২৫ গুণ বৃদ্ধি পেয়েছে। বিশে^র ১৯০টি দেশ বর্তমান অভিবাসী প্রায় এক কোটি। তাদের পাঠানো রেমিটেন্স দেশের অর্থনীতিতে গুাংত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। সভায় অধ্যাপক বারকাত অভিবাসন সমস্যার বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন এবং সেগুলো সমাধানে বিভিন্ন পদক্ষেপের কথা উপস্থাপন করেন।
অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার জাকির হোসেনের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার নূর-উর-রহমান। সভায় অন্যদের মধ্যে প্রখ্যাত কথাসাহিত্যিক হাসান আজিজুল হক বক্তব্য দেন। বৈদেশিক কর্মসংস্থান সংশ্লিষ্ট ছাড়াও বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তা, বিদেশ ফেরত নারী-পুরুষ ও গণমাধ্যম কর্মীরা ওই সভায় অংশ নেন।

How useful was this post?

Click on a star to rate it!

Average rating 0 / 5. Vote count: 0

No votes so far! Be the first to rate this post.