ডাক্তার স্ত্রীর যৌতুক মামলায় ডাক্তার স্বামী গ্রেফতার

0
(0)


শান্ত পথিক,গৌরনদী।
বরিশালের গৌরনদীতে ডাক্তার স্ত্রীকে যৌতুকের জন্য শারীরিক নির্যাতন, নির্যাতনের পরে আটক করে রাখার অভিযোগ ডাক্তার স্বামী মো.টিপু সুলতান ও তার পরিবারের বিরুদ্ধে। মঙ্গলবার রাতে ডাক্তার স্ত্রী মিলাদুজ্জামান ইরা বাদি হয়ে স্বামী ও শশুরকে আসামি করে গৌরনদী মডেল থানায় যৌতুক ও নারী নির্যাতন মামলা দায়ের করলে,স্বামী ডাক্তার মো.টিপু সুলতানকে পুলিশ ওই রাতেই গ্রেফতার করেন।
ডাক্তার মিলাদুজ্জামান ইরা (২৮) ৪২তম বিসিএস,তার বাবার বাড়ি কুমিল্লা সদর থানার দৈয়ারা কচুয়া গ্রামে। স্বামী ডাক্তার মো.টিপু সুলতান ৩৮তম বিসিএস,তার বাবার বাড়ি বরিশালের গৌরনদী উপজেলার নলচিড়া গ্রামে। তারা গৌরনদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্মরত ছিলেন।
মামলা সুত্রে জানাগেছে, ২০২১ সালের আগষ্ট মাসে ডাক্তার মিলাদুজ্জামান ইরার সাথে শরিয়ত মোতাবেক বিবাহ হয়। বিবাহের পর থেকেই ডাক্তার টিপু সুলতান ১০ লাখ টাকা যৌতুক দাবী করে মানসিক ও শারীরিক নির্যাতন করতে থাকে ডাক্তার ইরার উপর।

 

গত ৪ জানুয়ারী ডাক্তার টিপু সুলতান নলচিড়া গ্রামে তার বসত বাড়ির দক্ষিন পাশের্^র রুমে স্ত্রী ইরাকে আটক করে বেদম মারধর করে এক পর্যায় সিলিং ফ্যানে গলায় ওরনা পেঁচিয়ে ঝুলিয়ে হত্যা করার চেস্টা করে। অনেক অনুরোধ করা এবং ১০ লাখ টাকা দেয়ার কথা বলে সে অবস্থা থেকে রেহাই মেলে। এরপর বিষয়টি ডাক্তার ইরা তার বাবাকে জানালে , সে ইরার বাবার মোবাইল ফোনে টিপুর বাবার সাথে কথা বলে একটি সমাযোতার চেষ্টা চালালে তাতে টিপুর বাবা মো.বাদশা ফকির কোন কর্নপাত করেনি।
এরপর গত ৩ এপ্রিল ডাক্তার ইরাকে নিয়ে তার স্বামী ডাক্তার টিপু সুলতান গৌরনদী উপজেলার এবি সিদ্দিক নামক একটি হাসপাতালের ৩য় তলায় একটি রুমে আটক করে। সেখানে বসে আবার পুনরায় যৌতুকের ১০ লাখ টাকার জন্য মারধর করে শরীরের বিভিন্ন জায়গায় জখম করে।
এসম ওই হাসপাতালের লোকজন এগিয়ে আসলে ডাক্তার ইরাকে নিয়ে তার স্বামীর বাড়িতে নিয়ে দালানের একটি কক্ষে আটক করে মোবাইল ফোন নিয়ে যায়। আর বলে ১০ লাখ টাকা আনার জন্য আমি অনেক অনুনয় বিনয় করে টিপুর বাবাকে বিষয়টি বললে তারা নুন্যতম কর্নপাত করেনি।
পরে এক প্রতিবেশির সহযোগিতায় ডাক্তার ইরা তার বাবাকে জানালে সে কুমিল্লা থেকে এসে ডাক্তার ইরাকে উদ্ধার করে। মঙ্গলবার রাতে গৌরনদী মডেল থানায় স্বামী ও শশুরকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন ডাক্তার মিলাদুজ্জামান ইরা। গৌরনদী মডেল থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে ডাক্তার টিপু সুতানকে গ্রেফতার করেন।
এ বিষয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও গৌরনদী মডেল থানার ওসি তদন্ত মো.হেলাল উদ্দিন কালের কন্ঠকে জানান, যৌতুক দাবী ও শারীরিক নির্যাতন এর অভিযোগে মামলা হলে ডাক্তার টিপু সুলতানকে গ্রেফতার করা হয়েছে এবং গতকাল বুধবার তাকে (ডাক্তার টিপু সুলতানকে) আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।
এ বিষয়ে গৌরনদী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার সাঈয়েদ মোহাম্মাদ আমরুল্লাহ কালের কন্ঠকে বলেন, বিষয়টি খুবই দুখজনক মেয়েটির (ডাক্তার মিলাদুজ্জামান ইরা) সাথে অমানবিক এবং অমানুষিক আচরন করা হয়েছে।

How useful was this post?

Click on a star to rate it!

Average rating 0 / 5. Vote count: 0

No votes so far! Be the first to rate this post.