স্বরূপকাঠিতে যৌতুকের বলি নববধু নাজমুন নাহার

হযরত আলী হিরু,পিরোজপুর প্রতিনিধি ॥
স্বামির দাবীকৃত যৌতুকের টাকা দিতে না পারায় বিয়ের ৬ মাসের মাথায় পিরোজপুরের স্বরূপকাঠির বলদিয়া ইউনিয়নের কাটাখালী গ্রামের নাজমুন নাহার নামের এক নববধুকে জীবন দিতে হয়েছে। রোববার বিকেলে মুন্সগঞ্জে ভাড়া করা বাসার মধ্যে ঝুলন্ত অবস্থায় মুন্সিগঞ্জ পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে। পরে ময়না তদন্ত শেষে পিতার কাছে লাশ হস্তান্তর করে। মঙ্গলবার একই উপজেলার বলদিয়া ইউনিয়নের গগন গ্রামে তার পিত্রালয়ের পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়েছে। নিহত নাজমুন নাহারের পিতা আব্দুল হালিমের উপস্থিতিতে চাচা আবুল কালাম নাজমুন নাহারকে হত্যা করা হয়েছে দাবী করে জানান ৬ মাস পূর্বে একই ইউনিয়নের কাটাখালী গ্রামের মো. মেহেদীর পুত্র আরিফের সঙ্গে তার বিয়ে হয়। বিয়ের কিছুদিন যেতে না যেতে পিতার কাছ থেকে টাকা এনে দেওয়ার জন্য নাজমুন নাহারকে চাপ দিতে থাকে আরিফ। এ নিয়ে প্রায় প্রতিদিন তাদের মধ্যে ঝগড়া বিবাদ হত। এক পর্যায়ে গত ১ অক্টোবর অরিফের ভগ্নিপতি আদর্শ বয়া গ্রামের জহিরুল হক তাদেরকে মুন্সিগঞ্জ নিয়ে বাসা ভাড়া করে দেয়। সেখানে অরিফকে কাজও জুটিয়ে দেন তিনি। এর পরেও আরিফ টাকার জন্য নাজমুন নাহারকে চাপ দিত। এরই একপর্যায়ে রোববার বিকেলে বাসার মধ্যে তার ঝুলন্ত লাশ পাওয়া যায়। নেছারাবাদ থানার ওসি মো. মুনিরুল ইসলাম জানান মুন্সিগঞ্জের ওসির সাথে তার কথা হয়েছে। মুন্সিগঞ্জ থানায় অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে। ময়না তদন্তের রিপোর্ট পাওয়ার পর পরবর্তি ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে তিনি জানিয়েছেন।