আগৈলঝাড়ায় রাস্তা কাটা নিয়ে তেলেসমাতি কান্ড ইউএনওর ঘটনাস্থল পরিদর্শন

0
(0)

আগৈলঝাড়ায় রাস্তা কাটা নিয়ে তেলেসমাতি
কান্ড ইউএনওর ঘটনাস্থল পরিদর্শন
আঞ্চলিক প্রতিনিধি,
আগৈলঝাড়ায় রাস্তা কেটে দেয়ায় দুই গ্রামের লোকজনের চলাচল বন্ধ হওয়ায় ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা । কাটা রাস্তা ভরাট করে চলাচল স্বাভাবিক রেখেছেন ইউএনও।
সরেজমিনে গিয়ে জানা গেছে, উপজেলার বাকাল ইউনিয়নের সরবাড়ি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন অধিকারী বাড়ির লোকজন সোমবার রাতে ও মঙ্গলবার সকালে সরবাড়ি ও জলিরপাড় গ্রামের লোকজনের চলাচলের একমাত্র রাস্তা কেটে দেয়। রাস্তা কেটে দেয়ার ফলে উল্লেখিত দুই গ্রামের সহ¯্রাধিক লোক জনের চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। শিশুরাও যেতে পারছে না স্কুলে। এঘটনায় ওই দুই গ্রামের বিক্ষুব্ধ গ্রামবাসি মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার অফিসের নীচে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে।
পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিপুল চন্দ্র দাস দুপুরে একদল পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। পরিদর্শনকালে ইউএন’র কাছে অধিকারী বাড়ির অতুল ও বাবুল অধিকারী রাস্তা কাটার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, তাদের বাড়ির উপর দিয়ে পূর্ব পুরুষের সময় থেকে লোকজন যাতায়াত করে আসছে। কিন্তু যাতায়াত করা মোটরসাইকেলবাহী লোকজনের কারণে বাড়ির নিরাপত্তা ও স্বাধীনতা বিঘিœত হবার পাশাপাশি দিনে ও রাতে যাতায়াতকারী মাদকসেবীদের অত্যাচারে তারা অতিষ্ট। তাই তারা রাস্তা কেটে দিয়েছে। রাস্তা দিয়ে মোটরসাইকেল বন্ধ করাই তাদের প্রধান দাবি। তবে তারা কাউকে হাটতে নিষেধ করছেন না। কাটা জায়গায় বাঁশের পুল (চাল) দিয়ে চলাচলের পথ উন্মুক্ত থাকবে।
ইউএনও বিপুল চন্দ্র দাস কাটা রাস্তা ভরাট করে জনগনের চলাচলের ব্যবস্থা করেন।
ঘটনাস্থলে বিক্ষুব্ধ গ্রামবাসীকে নিবৃত করেন প্রশাসনের লোকজন। এসময় উপস্থিত ছিলেন ভাইস চেয়ারম্যান মলিনা রানী রায়, ওসি (তদন্ত) নকিব আকরাম, বাকাল ইউপি চেয়ারম্যান বিপুল দাস, আওয়ামীলীগ নেতা সহিদুল ইসলাম পাইক, উপজেলা যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক অনিমেষ মন্ডলসহ স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।
পরে বিবাদমান সমস্যা নিরসন কল্পে বিকল্প রাস্তার মাধ্যমে যাতায়াতের ব্যবস্থা সচলের জন্য অধিকারী বাড়ির মুরব্বী ও সরবাড়ি জলিরপাড় গ্রামের মুরব্বীদের ইউএনও অফিসে সোমবার আলোচনায় বসার আহ্বান জানান।

How useful was this post?

Click on a star to rate it!

Average rating 0 / 5. Vote count: 0

No votes so far! Be the first to rate this post.