‌সতীদাহর সমর্থনে রামমোহন রায়কে ব্রিটিশের চামচা বলে আক্রমণ মোদিভক্ত পায়েলের

 

সবুজবাংলা ডেস্কঃ নারীকে মুক্তির পথ দেখিয়েছিলেন যিনি সেই রাজা রামমোহন রায়কে অসম্মানে বিদ্ধ করল অপর এক নারী। সতীদাহ প্রথার অবসান ঘটিয়েছিলেন যিনি, তাঁর কপালে জুটলো ব্রিটিশের চামচা, স্বৈরাচারী হওয়ার তকমা। আর সেই তকমা দিলেন এক নারীই। বলিউড অভিনেত্রী পায়েল রোহতগী। পায়েল তাঁর টুইটারে সতীদাহ প্রথার সমর্থন করে লিখেছেন রাজা রামমোহন রায় আদতে একজন স্বৈরাচারী এবং ব্রিটিশের চামচা জাতীয় ব্যক্তি ছিলেন। ব্রিটিশ সংস্কৃতিতে উদ্বুদ্ধ হয়েই সতীদাহ প্রথার অবসান ঘটিয়েছিলেন। অথচ এই সতীদাহ প্রথা ভারতীয় সংস্কৃতীর একটি অঙ্গ ছিল। সেই ঐতিহ্যের অবসান ঘটিয়ে ভারতীয় সংস্কৃতিতে আঘাত হেনেছেন তিনি।
পায়েলের দাবি সতীদাহ প্রথা ছিল মুঘলদের হাত থেকে নিজেদের সম্মান বাঁচানোর উপায়। সেকারণে রাজস্থানে জহর এখনও ভীষণভাবে স্বীকৃত।
পায়েলের এই টুইট ঘিরে শোরগোল পড়ে যায় নেটিজেনদের মধ্যে। অধিকাংশই সরব হয়েছেন পায়েলের বিরুদ্ধে। অনেকে আবার পায়েলের যুক্তিকে সমর্থন জানিয়েছেন। কিন্তু পায়েল কী আদৌ সতীদাহ আর জহরের মধ্যে পার্থক্য বুঝতে পেরেছেন?‌ না সতীদাহ প্রথা কাকে বলে সেটা জানেন?‌ উল্লেখ্য, পায়েল একজন স্বীকৃত মোদিভক্ত।