গৌরনদীর ডাচবাংলা ব্যাংকের এজেন্টের ১২ লাখ টাকা ছিনতাই


স্টাফ রিপোর্টার :
বুধবার সন্ধ্যায় বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কে উজিরপুর উপজেলার সন্ধ্যানদীর মেজর এম.এ জলিল সেতুর উপরে অস্ত্র ঠেকিয়ে একদল ছিনতাইকারী গৌরনদী বাসষ্ট্যান্ডের ব্যবসায়ী ও ডাচ বাংলা ব্যাংকের এজেন্ট মোঃ মশিউর রহমান (রিয়াজ মোল্লা)’র নগদ ১২ লাখ টাকা ছিনিয়ে নিয়ে গেছে।
এ ঘটনায় ওইদিন রাতে উজিরপুর মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হলেও পুলিশ গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেল ৫টা পর্যন্ত ছিনতাইকারী দলকে চিহ্নিত কিংবা ওই দলের কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি।
ছিনতাইয়ের শিকার ব্যবসায়ী জানান, তিনি ডাচ বাংলা ব্যাংকের গৌরনদী উপজেলা সদরসহ উপজেলার চাঁদশী, সরিকল, বাটাজোর ইউনিয়ন এলাকার সুপার এজেন্ট। ফলে গৌরনদী সদরসহ উপজেলার সরিকল, বাটাজোর এর এজেন্ট থেকে কালেকশনের ১২ লাখ টাকা নিয়ে ডাচ বাংলা ব্যাংকের বরিশাল শাখায় জমা দিতে বুধবার বিকেলে মোটরসাইকেল যোগে বরিশাল নগরীর উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেন।
সন্ধ্যার কিছুক্ষন পূর্বে বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কের উজিরপুর উপজেলার সন্ধ্যা নদীর মেজর এমএ জলিল সেতুর টোল প্লাজা অতিক্রম করে সেতু পার হওয়ার সময় সেতুর ওপরে থাকতে তার চোখে ধুলা পরে। এ সময় সেতুর মাঝ বরাবরে সাইট করে মোটরসাইকেল থামিয়ে তিনি চোখের ধুলা পরিস্কার করছিলেন। এ সময় পেছন দিক থেকে অপর দুটি মোটরসাইকেলে আসা হেলমেট পড়া চার সদস্যের একটি ছিনতাইকারী দল তাকে অস্ত্র ঠেকিয়ে সাথে থাকা ব্যাগভর্তি ১২ লাখ টাকা ছিনিয়ে নিয়ে পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় হতবম্ব ব্যবসায়ী কিং কর্তব্যবিমুর হয়ে পড়েন। পরে এ ঘটনা তিনি ডাচ বাংলা ব্যাংকের সেলস ম্যানেজারসহ উর্ধ্বতন কর্মকর্তাসহ উজিরপুর থানা পুলিশকে জানান।
খবর পেয়ে ওই রাতেই বরিশাল জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রকিব উদ্দিন, সহকারী পুলিশ সুপার (উজিরপুর সার্কেল) আকরাম হোসেন, উজিরপুর মডেল থানা পুলিশের কর্মকর্তাগন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।
উজিরপুর মডেল থানার ওসি শিশির কুমার পাল জানান, বুধবার রাত ১১টার দিকে ছিনতাইয়ের শিকার মশিউর রহমান (রিয়াজ মোল্লা) থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করেছেন। এর আগে সন্ধ্যায় ব্যবসায়ীর নগদ টাকা ছিনতাইয়ের খবর পাওয়ার সাথে সাথে আসপাশের সকল থানা পুলিশকে ঘটনাটি অবহিত করে সতর্ক নজরদারি করতে বলা হয়েছে। সেতুর টোল প্লাজাসহ সংশ্লিষ্ট এলাকার সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে ছিনতাইকারীদের সনাক্ত ও গ্রেফতার করার জন্য জোর প্রচেষ্টা চলছে।