স্বরূপকাঠিতে বস্তাবন্দী লাশ উদ্ধার গ্রেফতার এক

0
(0)

হযরত আলী হিরু, পিরোজপুর প্রতিনিধি ॥
পিরোজপুরের স্বরূপকাঠির সুটিয়াকাঠি কালিবাড়ি খাল থেকে বস্তাবন্দী ভাসমান অবস্থায় উদ্ধার হওয়া নিহত যুবক রিপন সমদ্দারের হত্যার কথা আদালতে স্বীকার করে জবানবন্দি দিয়েছেন ঘাতক অশোক রায়। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা নেছারাবাদ থানার এসআই মো. ওয়াহিদুজ্জামান জানান, গত বৃহস্পতিবার বিকেলে পিরোজপুরের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট প্রবীর কুমার দাশের আদালতে জাকির ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দি দিয়েছেন। পরে আদালত তাকে কারাগারে পাঠান। গত বুধবার রাতে নেছারাবাদ থানার এসআই মো. ওয়াহিদুজ্জামানের নেতৃত্বে পুলিশ উজিরপুর এলাকার নাথারকান্দি এলাকার অনুকূল রায়ের ছেলে অশোক রায় (২২) কে ওই এলাকার হারতা বাজার থেকে গ্রেফতার করে । জবানবন্দীতে অশোক জানায়, নিহত রিপনের বৃদ্ধা মা ছাড়া আর কোন স্বজন নেই। ২০০৭ সালের শেষের দিকে রিপন ভারতে চলে গেলে অশোকসহ এলাকার বিভিন্ন লোকজন রিপনের জমিজমা ভোগ করত। কিছুদিন পূর্বে রিপন এলাকায় ফিরে আসলে তার জমিজমার মালিক হওয়ার লক্ষেই অশোক ও তার সহযোগীরা মিলে রিপনকে উজিরপুর এলাকার নাথারকান্দী নদীর পাড়ে নিয়ে গিয়ে হত্যা করে লাশ বস্তাবন্দী করে নদীতে ফেলে দেয়। উলে¬খ্য গত ১৯ ফেব্র“য়ারী দুপুরে স্বরূপকাঠির সুটিয়াকাঠি কালিবাড়ি খাল থেকে বস্তাবন্দী ভাসমান অবস্থায় অজ্ঞাত যুবকের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। ওইদিন রাতেই পুলিশ বাদী হয়ে নেছারাবাদ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। খবর পেয়ে নিহতের মা সুমতি সমদ্দার নেছারাবাদ থানায় এসে তার ছেলে রিপনের লাশ শনাক্ত করে।

How useful was this post?

Click on a star to rate it!

Average rating 0 / 5. Vote count: 0

No votes so far! Be the first to rate this post.